বিশ্বের ভুতুড়ে ৫টি পরিত্যক্ত শহর

0
754

ঘর বাড়ি, রাস্তা ঘাট, দোকান পাট সবই থাকলেও শুধু মানুষের অনুপস্থিতি যে কোন জায়গা ভুতুরে করে তুলতে পারে। পৃথিবীতে এমন এমন কিছু পরিতক্ত জায়গা রয়েছে যা সত্যিই ভয়ানক। জেনে নেয়া যাক এমন কিছু ভয়ানক স্থান সম্পৰ্কে।

ক্যাডিক্যান

রাসিয়ায় এই শহরটি অবস্থিত। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় কয়লা তোলার পেশা জীবীদের জন্য গড়ে তোলা হয়েছিল এই শহর। ছবিয়ত ইউনিয়ন ভেঙ্গে যাওয়ার সময় অনেক ছোট ছোট শহরের মত পরিতক্ত হয়ে যায় এই শহরটিও। আর এর সাথে যোগ হয়েছিল ক্ষনির মধ্যে এক দুর্ঘটনা থেকে ৬ জন শ্রমিকের মৃত্যু। তারপর থেকেই ১১ হাজার মানুষের শহর মানুষ শূণ্য হয়ে যায়। ২০১০ সালে শহরটিকে জনশূণ্য ঘোষণা করা হয়।

কোলমানস্কপ

এক সময় খুব জনপ্রিয় খনিজ শহর ছিল এটি। দক্ষিণ নামিবিয়ার নামি মরুভূমিতে রয়েছে পরিতক্ত এই ভুতুরে কোলমানস্কপ শহরটি। এক সময় হিরা সমৃদ্ধ এলাকা ছিল এটি। ২০০৮ সালের দিকে জার্মানরা এখানে মাইলিং শুরু করে। এবং খুব দ্রুত একটি জাকজামক আপক্তি শহরের পতন হয়। স্কুল কলেজ হসপিটাল থিয়েটার সব কিছুই ছিল এই শহরে। প্রথম বিশ্ব যুদ্ধের পড়ে হীরার পরিমাণ কমতে থাকে এবং শহরটিও আস্থে আস্থে খালী হতে শুরু করে। ১৯২৮ সালে কোলমানস্কপ শহর থেকে ২৭০ কি মি দুরে স্ম্রদ্দ একটি নূতন হীরার খনির সন্ধান মিলে। হীরার খনির লোভে ঘড় বাড়ি যেমন ছিল তেমন রেখেই চলে যায় ভু মানুষ। ১৯৫৪ সালে পুরপুরি খালী হয়ে যায় শহরটি।

ক্রোকো

এটি খুবি জনপ্রিয় একটি ভুতুরে শহর। ইতালির মাঝিরা প্রদেশে রয়েছে এই শহরটি। শ্রতির ইতিহাস অনেক পুরন। খিস্ত্র পূর্ব ৫৪০ অব্দে গ্রিকদের বসবাস ছিল এই শহরে। ১৮০৭ সালে সামরিক অভিযান অনেক মানুষের মৃত্যুর কারণ হয়। ১৮৯১ সালের দিকে এখানে হাজার দুয়েক মানুষের বসবাস ছিল। কৃষি উৎপাদন সমস্যার কারানে ১৮৯২-১৯২২ সালের মধ্যে শহর ছাড়তে বাধ্য হয় ১৩০০ মত অধিবাসী। ১৯৬৩ সালের ভূমি ধ্বস ও ১৯৭২ সালের বন্যা এবং ১৯৮০ সালের ভূমিকম্পের পড়ে শহরটি খালি হয়ে যায়। বৰ্তমানে শহরটি ভুতুরে শহরে পরিণত হয়েছে।

প্রিপিয়াট

উত্তর উইকেরাইন ও বেলারেসের মধ্য বর্তি স্থানে অবস্থানে এই ভুতুরে শহরটি। ১৯৭০ সালে তৎকালিনিন সোভিয়েত ইউনিয়ন পারমাণবিক শক্তি প্রকল্পের অংশ হিসেবে নির্মিত হয়েছিল চের্নু বিল পাওয়ার প্লান্ট। কৰ্মি ও বিজ্ঞানিদের আবাসনের জন্য তৈরি হয়েছিল এই শহরটি। ১৮৮৬ সালের ২৬ এপ্রিলের চের্নু বিল দূর্ঘটনায় পড়ে। এবং দূর্ঘটনায় পড়ে তেজস্কিয়তার অসঙ্কায় ওই দিনের মধেই শহরের বাসিন্দাদের স্রিয়ে ফেলা হয়েছিল। এরপর থেকেই এই জমজমাট এই শহরটি ভুতুরে শহরে পরিণত হয়।

ওহাদুর সু গ্লেন

ফ্রান্সের রুট বিহাইনের ছোট একটি গ্রাম ওহাদুর সু গ্লেন। দ্বিত্বীয় বিশ্ব যুদ্ধের সময় ১৯৪৪ সালে ১০ জুন জার্মান বাহিনী গ্রামটিতে আক্রমণ করে এবং গন হত্যা চালায়। নারী ও শিশু সহ গ্রামের ৬৪০ জন অধিবাসীকে হত্যা কারা হয়। এখন এটি একটি পরিত্যক্ত শহরে পরিণত হয়েছে।