বাংলাদেশ এর প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা ব্যবস্থায় কারা রয়েছে

0
505

SSF যার পুরনাম স্পেশাল সিকিউরিটি ফোর্স। বাংলাদেশের সবচেয়ে ভয়ঙ্কর ও চৌকস উচ্চ প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত এই বাহিনী। এই বাহিনীর প্রধান কাজ বাংলাদেশের প্রধান প্রধানমন্ত্রী সহ অন্যান্য দেশের বিশেষ ব্যক্তিদের নিরাপত্তা প্রধান করা।

এই বাহিনী বাংলাদেশের আর্মি, বিমান বাহিনী, নৌ বাহিনী এবং পুলিশ থেকে বিশেষ প্রক্রিয়ায় এদেরকে নির্বাচন করা হয়।

এই বাহিনীর সদস্যরা সব সময় প্রধানমন্ত্রীর আশেপাশেই থাকে। কখনো এরা পোশাক থাকে অবার কখনো এরা ভিন্ন পোষাকে থাকে। প্রত্যেক সদস্যের গায়ে বুলেট প্রুপ জ্যাকেট পরান থাকে। এদের পোশাক অন্য সব বাহিনীর থেকে আলাদা। তাছাড়া এদের শরীরের বিশেষ অঙ্গে বিভিন্ন ফাইটিং অস্ত্র সংযুক্ত থাকে। চোখের বিশেষ নিরাপত্তার জন্য প্রত্যেক সদস্যের চোখে সানগ্লাস পড়তে দেখা যায়।

এই দলের প্রত্যেক সদস্য বিশেষ শারীরিক ক্ষমতার অধিকারী। যা অন্য সকল মানুষের মধ্যে নাই। পৃথীবীর সবথেকে উন্নত অস্ত্র কার কাছে না থাকলেও রয়েছে এই SSF বাহিনীর কাছে। SSF বাহিনীর নিজেদের সাথে বিদেশী পিস্তল বহন করে। দুর থেকে গুলি করার জন্য এই বাহিনীর কাছে রয়েছে আধুনিক গান। এটি দিয়ে ১ কি মি দূর থেকে শত্রুকে আঘাত করা সম্ভব। এছাড়াও এই বাহিনীর কাছে রয়েছে অটোমেটিক রাইফেল ও অত্যাধুনিক মেশিন গান। SSF এর প্রত্যেক সদস্য সব ধরনের অস্ত্র সমান ভাবে চালাতে সক্ষম। নির্ভুল নিশানাকে ভেদ করতে এরা ১০০ তে ১০০। এরা শুধু ভূমি থেকে নয় চলন্ত হেলিকাপ্টার থেকেও নির্ভুল নিশানায় গুলি চালাতে পারে।

SSF সদস্যদের রয়েছে বোমা ও অন্যান্য বিস্পরক দ্রবের উপরে বিশেষ ট্রেনিং। যেকোন ধরনের বোমা শনাক্ত ও বিস্পরক দ্রব নিষ্ক্রিয় করতে এরা সিক্ত হস্ত। এছাড়া প্রধানমন্ত্রীকে বাঁচানোর জন্য এদের রয়েছে বিশেষ ট্রেনিং। তাছাড়া SSF বাহিনীর প্রত্যেক সদস্যদের গাড়ী চালানোর জন্য বিশেষ ট্রেনিং দেয়া হয়। তবে সেটা স্বাভাবিক ট্রেনিং নয় এটা অনেক দ্রুত গাড়ী চালাতে ও যেকোন মুহূর্তে এরা গাড়ী ঘুরিয়ে নিতে পারে হলিউড মুভির মত।

SSF বাহিনীর কার্যালয়ে রয়েছে বিশেষ কান্টােল রুম। এই কান্টােল রুমের মাধ্যমে তারা বিশেষ ব্যক্তিদের উপরে বিশেষ নজর রাখতে পারে। এছাড়া এই বাহিনীর কাছে রয়েছে বিশেষ আইটি সেল। যাকিনা সব ধরনের নিরাপত্তা জনিত তথ্য সংগ্ৰহ করে থাকে।

রাষ্ট্রপতি হোসেন মোঃ এরশাদ ১৯৮৬ সালে একটি অধ্যাদেশ জারি করেন যা একই বছরের ১৯সে জুন থেকে কার্যকর কর হয়। পূর্বের ঘোষণা অনুযায়ী তৎকালীন রাষ্ট্রপতি এরশাদের তত্তাবধানে রাষ্ট্রপতি ও বিদেশ থেকে আগত রাষ্ট্র প্রধান দের নিরাপত্তার জন্য ১৫ জুন ১৯৮৬ সাল থেকে পেরসিডেন্ট সিকিউরিটি ফোর্স নামে একটি দল গঠন করা হয়। পরবর্তীতে এই পেরসিডেন্ট সিকিউরিটি ফোর্স নাম পরবর্তীন করে স্পেশাল সিকিউরিটি ফোর্স রাখা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here