একজন রক্তদাতার যে বিষয় গুল থাকা খুব জরুরী :-

0
322

১.রক্ত দানের ক্ষেত্রে পুরুষ হলে ১৮ থেকে ৬০ বছর পর্যন্ত রক্ত দিতে পারবেন আর মহিলা হলে ১৮ থেকে তার মাসিক শেষ হওয়া পর্যন্ত রক্ত দিতে পারবেন।

২.রক্ত দানের ক্ষেত্রে শারীরিক ওজন কমপক্ষে ৪৫-৫০ কেজি হতে হবে। এর বেশি হলে রক্ত দিতে পারবেন।

৩.রক্ত দেওয়ার ক্ষেত্রে অবশ্যই হিমগ্লবিন টেস্ট করে নিতে হবে। একজন পুরুষ এর ক্ষেত্রে তার হিমগ্লবিন অবশ্যই ১২.৫ হতে হবে এবং মহিলা হলে ১১.৫ হতে হবে।

৪.একজন পুরুষ ৩ মাস পর পর এবং একজন মহিলা ৪ মাস পর পর রক্ত দিতে পারবে তবে ইমারজেন্সি ভাবে একবার রক্ত দেওয়ার পর ৫৬ দিন পর রক্ত দিতে পারবে।

৫.রক্তদানের ক্ষেত্রে নাড়ির গতি কম বা বেশি হলে রক্ত দেওয়া যাবে না। ৬০% থেকে ৯০% পর্যন্ত হলে দেওয়া যাবে।

৬.মানুষের শরিরের তাপমাত্রা স্বাভাবিক হতে হবে।কোন ব্যাক্তির শরিরে জ্বর থাকলে রক্ত দিতে পারবে না।

৭.যদি কোন ব্যাক্তি ইনশুলিনজাতীয় কোন ঔষধ ইঞ্জেকশন আকারে গ্রহন করে তবে সে রক্ত দিতে পারবে না।

৮.যদি কোন রুগী ব্যাথার ঔষধ খান তাহলে রক্ত দিতে পারবেন না।

৯.অনেক মহিলা আছে যারা হরমন জাতীয় ঔষধ ইঞ্জেকশন আকারে গ্রহন করে তারা রক্ত দিতে পারবে না।

১০.এন্টিবায়োটিক খাওয়া অবস্তায় রক্ত দিতে পারবেন না। তবে এন্টিবায়োটিক খাওয়া শেষ হলে, ভাল হওয়ার পর রক্ত দিতে পারবেন।

১১.টিকা বা বেক্সিন নেওয়ার সময় রক্ত দিতে পারবেন না। তবে টিকা বা বেক্সিন দেওয়ার ১/২ মাস পর রক্ত দিতে পারবেন। তবে কিছু কিছু বেক্সিন আছে ওই সব এর ক্ষেত্রে আর বেশি সময় পর রক্ত দিতে হবে।

১২.মহিলাদের ক্ষেত্রে মাসিক চলাকালে রক্ত দিতে পারবে না।

প্রতিবার রক্ত দানের আগে অবশ্যই এই বিষয় গুল প্রতিটি মানুষের মেনে চলা উচিৎ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here